অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শেওলা স্থলবন্দরসংলগ্ন এলাকায় অবৈধভাবে পাথর ভাঙার যন্ত্র চালাচ্ছিলেন কয়েকজন অসাধু ব্যবসায়ী। বায়ুদূষণ রোধে এসব যন্ত্র পরিচালনাকারী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আজ অভিযান চালায় পরিবেশ অধিদপ্তর। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৪০টি অবৈধ পাথর ভাঙার যন্ত্রের মালিককে ৭ লাখ টাকা জরিমানা ও দুটি পাথর ভাঙার যন্ত্র ধ্বংস করা হয়।

অভিযানে পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেটের সহকারী পরিচালক মো. বদরুল হুদা ও মো. মোহাইমিনুল হক, বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক বনানী দাস, গবেষণাগার সহকারী মুহাম্মদ শাহাদৎ হোসেন, নমুনা সংগ্রহকারী মো. রুবেল মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান, বায়ুদূষণ (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা, ২০২২ লঙ্ঘন করে অপরিকল্পিতভাবে পাথর ভাঙার যন্ত্র চালানোর মাধ্যমে বায়ুদূষণ করায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন, ১৯৯৫ (সংশোধিত ২০১০)-এর ১৫(২) ধারায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া অভিযান শেষে বায়ুদূষণের দীর্ঘমেয়াদি কুফল নিয়ে অধিদপ্তরের উদ্যোগে পাথর ভাঙার যন্ত্রের মালিক, শ্রমিকসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সচেতন করা হয়।

পরিচালক মোহাম্মদ এমরান হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, বায়ুদূষণ নিয়ন্ত্রণে পরিবেশ অধিদপ্তরের নিয়মিত অভিযান অব্যাহত থাকবে।