পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রেলস্টেশনের পশ্চিম দিকে আউটারে পুনিয়াউট রেলক্রসিং এলাকায় রেললাইনে বসে মুঠোফোনে গেম খেলছিলেন তিন তরুণ—রিমঝিম, আরাফাত ও আল আমিন। এ সময় সিলেট থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী সুরমা মেইল নামের ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান রিমঝিম। এ ঘটনায় পা ও মাথায় গুরুতর আঘাত পান আরাফাত ও আল আমিন। দুজনকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক অনির্বাণ মোদক বলেন, দুই তরুণের অবস্থায় আশঙ্কাজনক। তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকায় নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) হাতেম আলী ভূঁইয়া প্রথম আলোকে বলেন, মুঠোফোনে গভীর মনোযোগ দিয়ে রেললাইনে বসে গেম খেলছিলেন তিন তরুণ। ট্রেন আসার শব্দ তাঁরা সম্ভবত বুঝতে পারেননি। এতে ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে এক তরুণ ঘটনাস্থলেই মারা যান। ওই তরুণের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রাতেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।