নিহত তিনজন হলেন বাসের সুপারভাইজার আশিকুজ্জামান (২৭), ট্রাকচালক সোহাগ (৩০) ও বাসযাত্রী নিজাম উদ্দিন (৬০)। আশিকুজ্জামান গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার শ্রীরামকান্দি গ্রামের আসাদুজ্জামানের ছেলে। ট্রাকচালক সোহাগের বাড়ি ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার সাটুল গ্রামে। নিজাম উদ্দিন গোপালগঞ্জ সদর উপজেরার পারকুচলি গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ পরিদর্শক আবু নাঈম মো. মোফাজ্জেল হক বলেন, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ইমাদ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস টুঙ্গিপাড়ার দিকে যাচ্ছিল। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোপীনাথপুর বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছার পর বাসটির সঙ্গে সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বালুবোঝাই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে বাসের সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলে তিন জন নিহত হয়। এ সময় বাসের ১৫ যাত্রী আহত হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, আহত ব্যক্তিদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজন। তাঁদের উন্নত চিকিৎসার জন্য আজ শুক্রবার সকালে ঢাকায় পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।