দণ্ড পাওয়া ওই তরুণের নাম শফিকুল ইসলাম (২৫)। তিনি নাটোর সদর উপজেলার হযরতপুর ফয়েজ মোড় এলাকার মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে সরকারি কৌঁসুলি ইসমত আরা বলেন, রায় ঘোষণার সময় আসামি শফিকুল ইসলাম আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, শফিকুল ইন্টারনেটের মাধ্যমে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল), বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল), বিগব্যাশসহ অন্যান্য ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে জুয়া খেলতেন এবং অন্যদেরও জুয়া খেলতে সহায়তা করতেন। এ অভিযোগে ২০১৯ সালের ২৩ ডিসেম্বর নাটোর জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) একটি দল শফিকুল ইসলামের ‘সামি স্পোর্টস’ নামের দোকানে অভিযান চালায়। এ সময় জুয়া খেলার নানা আলামতসহ তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে থানায় একটি মামলা হয়। পরে পুলিশ শফিকুলকে অভিযুক্ত করে মামলার অভিযোগপত্র দিলে আদালতে বিচার শুরু হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন