কাঁঠালিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য নুরুল আলম বলেন, নাসরিন আক্তার শান্ত ও নম্র-ভদ্র ছাত্রী ছিল। ওই তরুণ নাসরিনকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করতেন। ঘটনার দিন মেয়েটির মা চম্পা বেগম তাঁর বাবার বাড়ি ছিল। ঘর ফাঁকা পেয়ে সে আত্মহত্যা করেছে।

খবর পেয়ে কাঁঠালিয়া থানা-পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

যে তরুণের বিরুদ্ধে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বাবা প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার ছেলে ওই মেয়েটিকে পছন্দ করত। তবে উত্ত্যক্ত করত কি না, জানি না।’

কাঁঠালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুরাদ আলী বলেন, এক সপ্তাহ আগে ওই ছেলের বাবা মেয়ের বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব পাঠায়। তবে এই কারণে বা উত্ত্যক্তের কারণে মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে, এমন কোনো অভিযোগ ওর মা-বাবা এখনো করেনি। ঘটনাটি পুলিশ গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করে দেখবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন