পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ভোর রাত চারটার দিকে দ্রুতগতির একটি ট্রাক লক্ষ্মীপুরের দিকে যাওয়ার পর সড়কের পাশে ছিটকে পড়া অজ্ঞাতনামা এক নারীর (৪৫) লাশ পড়ে থাকতে দেখেন আশপাশের লোকজন। তাঁরা ঘটনাটি থানা-পুলিশকে অবহিত করেন। এ ঘটনার প্রায় আধা ঘণ্টা পর ভোর সাড়ে চারটার দিকে চৌমুহনীর চৌরাস্তায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা একটি দ্রুতগতির যাত্রীবাহী বাস অজ্ঞাতনামা এক বৃদ্ধকে (৬০) চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে ওই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। ঘটনার পর স্থানীয় লোকজনের কেউ নিহত বৃদ্ধকে শনাক্ত করতে পারেননি। পরে তাই হাইওয়ে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মৃদুল কান্তি কুরি প্রথম আলোকে বলেন, ঘটনার পর তাঁরা গিয়ে নিহত দুই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছেন। তবে আজ শনিবার বিকেল পর্যন্ত নিহত ব্যক্তিদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। উদ্ধার করা লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালীর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত ব্যক্তিদের স্বজনেরা কেউ না এলে বেওয়ারিশ হিসেবে সরকারি কবরস্থানে তাঁদের দাফনের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান ওসি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন