এসআই শাহজাহান আলী বলেন, গতকাল রাত ১২টার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় লাশের ছবি দেখে সেটি নিখোঁজ দুরন্ত বিপ্লবের বলে নাক্ত করেন তাঁর ছোট বোন শ্বাশতী বিপ্লব। দুরন্ত বিপ্লব ৭ নভেম্বর থেকে নিখোঁজ ছিলেন। এই ঘটনায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় তাঁর পরিবার একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিল।

দুরন্ত বিপ্লবের ছোট বোনের স্বামী ইমরুল খান প্রথম আলোকে বলেন, দুরন্ত বিপ্লব নিখোঁজের ঘটনায় ৯ নভেম্বর দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় জিডি করা হয়। তিনি অর্গানিক কৃষি নিয়ে কাজ করতেন। দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে তাঁর মাছের খামার ও কৃষি খামার আছে। তাঁর কোনো শত্রু ছিল না। কী কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে, তাঁরা বুঝতে পারছেন না।

এ বিষয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহজাহান প্রথম আলোকে বলেন, বুড়িগঙ্গায় নদী থেকে উদ্ধার লাশটি দুরন্ত বিপ্লবের বলে শনাক্ত করেছেন তাঁর স্বজনেরা। লাশটি পচে গেছে। এটি দুর্ঘটনা, নাকি হত্যাকাণ্ড; তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়া গেলে কীভাবে তাঁর মৃত্যু হয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যাবে।