পরে তাঁদের চিৎকারে প্রতিবেশীরা দৌড়ে এসে গ্যাসের সিলিন্ডারগুলো অন্যত্র সরিয়ে গৃহকর্তা বাবুল মিয়া, তাঁর স্ত্রী বিউটি বেগম ও তাঁদের চার ছেলেমেয়েকে উদ্ধার করেন। তবে গ্যাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরণ না ঘটায় ওই বাড়ির লোকজন অল্পের জন্য রক্ষা পান।

ট্রাকের চালক ময়মনসিংহ সদরের স্বপন মিয়া বলেন, ঢাকাগামী একটি বাস তাঁর ট্রাকটিকে অতিক্রম করতে গিয়ে এক পাশ থেকে চাপ দেয়। এ সময় নিজেকে রক্ষা করতে মহাসড়কের পাশে সরে গেলে ট্রাকটি উল্টে যায়। এতে তিনি নিজেও আহত হয়েছেন।

default-image

স্বল্পপেন্নাই গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী আরিফ হোসেন বলেন, ওই ট্রাকের ওপর নিরাপত্তা জালি না থাকায় দুর্ঘটনার পরপর গ্যাসের সিলিন্ডারগুলো বাড়ির ভেতরে ঢুকে পড়ে। সিলিন্ডারগুলো বিস্ফোরিত হলে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারত।

দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক ( এসআই) রেজাউল করিম বলেন, দুর্ঘটনার পরই আহতদের খোঁজ খবর নেওয়া হয়েছে। কেউ গুরুতর আহত হননি। বিকেল সাড়ে চারটার দিকে ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন