বরিশাল-পটুয়াখালী-কুয়াকাটা রুটের একটি বাসের টিকিট বিক্রেতা মো. আবুল কালাম বলেন, তেলের দাম বাড়লেও এই রুটে এখনো নতুন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়নি। আগামীকালের মধ্যে হয়তো ভাড়া নিয়ে একটা সিদ্ধান্ত পাওয়া যাবে। তাই আজ এই রুটে বাস কম চলাচল করছে।

কলাপাড়া পৌর শহরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের সাকুরা পরিবহনের টিকিট বিক্রেতা মো. নাজমুল হোসেন বলেন, ‘কলাপাড়া-সায়েদাবাদ রুটের এসি এবং নন-এসি গাড়ির ভাড়া আগের মতোই রাখছি। তবে কলাপাড়া থেকে গাজীপুরের ভাড়া আমরা ৮৫০ টাকা করেছি। ভাড়া আগে ছিল ৮০০ টাকা। কলাপাড়া থেকে গাবতলীর ভাড়াও আমরা ৫০ টাকা বাড়িয়েছি। এ ভাড়া আগে ছিল ৭৫০ টাকা। এখন করা হয়েছে ৮০০ টাকা।’

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কলাপাড়া-ঢাকা রুটের গোল্ডেন লাইন, মোল্লা, মল্লিক, প্রচেষ্টা, রাজীব, হিমিসহ অন্যান্য নিয়মিত পরিবহন আজ সকালে থেকে ছেড়ে যায়নি। তেলের দাম বাড়ার কারণে আপাতত এসব পরিবহনের সার্ভিস বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।

default-image

এদিকে বিআরটিসি পরিবহনের ভাড়া অপরিবর্তিত থাকলেও বরিশাল ও খুলনার দুটি বাস বন্ধ রাখা হয়েছে। বিআরটিসির টিকিট বিক্রেতা সোহেল ফরাজী বলেন, ‘আমরা বরিশাল-কুয়াকাটা এবং কুয়াকাটা-দিনাজপুর রুটের গাড়ি ভাড়া আগের মতোই রাখছি। তবে বরিশাল ও খুলনার দুটি গাড়ি আজ ছেড়ে যায়নি। তেলের দাম বাড়ার কারণে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

কলাপাড়া পৌর শহরে প্রায় ৭০টি ভাড়ায় চালিত মাইক্রোবাস ও প্রাইভেট কার সার্ভিস রয়েছে। তেলের দাম বাড়ায় এসব পরিবহনের ভাড়াও বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে ভাড়া বৃদ্ধির কারণে যাত্রী নেই বলে জানিয়েছেন চালকেরা।

কার চালক মাহতাব উদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, ‘তেলের দাম বাড়ার কারণে আমরা প্রতিটি গাড়িতে ৫০০ থেকে এক হাজার টাকা বাড়িয়ে চেয়েছিলাম। ভাড়া বাড়তি চাওয়ার কারণে আজ কেউই কোনো গাড়ি নিতে চায়নি। সব কটি গাড়ি অলস বসে আছে।’

এদিকে তেলের মূল্যবৃদ্ধির সুযোগে কলাপাড়া-কুয়াকাটা রুটে নিয়মিত চলাচলকারী মোটরসাইকেল, মাহিন্দ্র ও অটোরিকশায় যাত্রীদের কাছ থেকে বেশি ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। যাত্রী ও চালকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মাহিন্দ্র ও অটোরিকশায় যাত্রীপ্রতি ১০ টাকা বাড়ানো হয়েছে। এ ছাড়া ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেলে ৪০ থেকে ৫০ টাকা করে বেশি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে।

মো. আলমগীর হোসেন নামের এক মোটরসাইকেলচালক বলেন, কলাপাড়া পৌর শহর থেকে কুয়াকাটা পর্যন্ত প্রতিদিন প্রায় ১০০টি মোটরসাইকেল চলাচল করে। আগে এ রুটে দুজন যাত্রীর ভাড়া ছিল ১৪০ টাকা। এখন ১৮০ টাকা নেওয়া হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন