পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফেঞ্চুগঞ্জ মোকামবাজারের ওই দোকানেই সুবল বিশ্বাস রাত যাপন করতেন। প্রতিদিনের মতো গতকাল রাতে দোকানের ভেতরেই ছিলেন। রাত সাড়ে ১২টার দিকে হঠাৎ চিৎকার-চেঁচামেচির শব্দে আশপাশের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় বাসিন্দারা জেগে ওঠেন। পরে তাঁরা নিশী বাবুর দোকানটি খোলা দেখে সেখানে গিয়ে দেখেন সুবল বিশ্বাসের লাশ পড়ে আছে। খবর পেয়ে পুলিশ গতকাল রাতেই ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে।

পুলিশ জানায়, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে সুবল বিশ্বাসকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়েছে। নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি।

ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাফায়েত হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ ইতিমধ্যেই পাঁচজনকে আটক করেছে। গতকাল রাত থেকেই পুলিশের অভিযান চলমান। দ্রুততম সময়ের মধ্যে হত্যার রহস্য উন্মোচন করা যাবে বলে আশা করছেন তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন