পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে আরও জানা গেছে, ভাই-বোনের খোঁজ করতে গেলে একপর্যায়ে বাড়ির পাশের একটি ডোবায় তাদের লাশ মেলে। এতে স্বজন ও এলাকাবাসীর মধ্যে শোক নেমে আসে। নিহত ভাই-বোনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তক্ষরণের চিহ্ন আছে।

অপর দিকে কৃষক সুজন ঢালী পরিবার নিয়ে নব্যার চরে বসবাস করেন। সম্প্রতি তার প্রতিবেশী আক্কাছ ও বিলকিছদের সঙ্গে বিরোধ শুরু হয়। জমি নিয়ে একটি মামলাও চলমান। এর জেরে সুজনকে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে আসছিল তারা। সেসব হুমকিতে পরিবার নিয়ে সুজনের আতঙ্কে দিন কাটত।

সুজন ঢালীর অভিযোগ, জমিসংক্রান্ত বিরোধে পূর্বপরিকল্পিতভাবে প্রতিপক্ষ আক্কাছ ব্যাপারী ও বিলকিছ গংরা হত্যার ঘটনা ঘটিয়েছেন। তিনি থানায় মামলা করবেন বলেও জানান।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে আক্কাছ ব্যাপারীর মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। লক্ষ্মীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল বলেন, শিশু সামিয়া-তাজমুলের শরীরে আঘাতের চিহ্ন আছে। কেউ তাদের হত্যা করেছে, নাকি নৌকা থেকে নদীতে পড়ে গিয়ে মারা গেছে, তা এখনো জানা যায়নি। এ বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন