প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, আজ সকাল সাড়ে আটটার দিকে শামিমা ও তাঁর স্বামী ফিরোজ মোটরসাইকেলে করে বিদ্যালয়ে যাচ্ছিলেন। সঙ্গে ছিল তাঁদের মেয়ে প্রাপ্তি। তখনো সড়কে হালকা কুয়াশা ছিল। এর মধ্যে কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়কের মালশাহদহ এলাকায় পৌঁছালে দ্রুতগতির একটি ট্রাক তাঁদের চাপা দেয়। আশপাশের মানুষ সড়কে একটি মোটরসাইকেল ও তিনজনকে পড়ে থাকতে দেখে ছুটে যান। গিয়ে দেখেন ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে শামিমা সেখানেই মারা গেছে। এরপর লোকজন আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। ট্রাকচালককে আটকের চেষ্টা চলছে।