সুশীলন মিলনায়তনে সাহিত্যিক গাজী আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সাবেক সচিব ও সাতক্ষীরার সাবেক জেলা প্রশাসক মো. আবদুস সামাদ। উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য দেন সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রহিমা সুলতানা, কালীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আমিনুর রহমান, ভারতের কবি ও সাহিত্যিক কানাই সেন, সুশীলনের নির্বাহী পরিচালক ও আবৃত্তিকার মোস্তফা নুরুজ্জামান, কবি হোসেন উদ্দীন, ভারতের সংগীতশিল্পী কল্লাল ঘোষাল, কবি অঞ্জনা গোস্বামী, শিল্পী সান্ত্বনা দাশ, কবি আনিস অনিন্দ্য প্রমুখ।

কালীগঞ্জ শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সুকুমার দাশ ও আইনজীবী জাফরুল্যাহ ইব্রাহিমের সঞ্চালনায় উৎসবে অংশ নেন বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কবি, সাহিত্যিক ও শিল্পীরা।

বক্তারা বলেন, বাংলা সংস্কৃতি টিকিয়ে রাখতে হলে ভারত ও বাংলাদেশের কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক ও সংস্কৃতিকর্মীদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এভাবে পারস্পরিক আলোচনা ও ভাববিনিয়মের মাধ্যমে বাংলা সাহিত্যকে আরও শাণিত করা সম্ভব।