ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ দুপুরে পৌর বাজারে ওই অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ইউএনও কয়েকটি মাছের দোকানে বিক্রির জন্য রাখা চিংড়ি পরীক্ষা করে দেখেন। এর মধ্যে দুটি দোকানে চিংড়ি মাছের ভেতর জেলি ঢুকিয়ে ওজন বাড়িয়ে বিক্রির বিষয়টি হাতেনাতে ধরা পড়ে।

ইউএনও নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, জেলি ঢুকিয়ে চিংড়ির ওজন বাড়ানোর অপরাধে অসাধু দুই মাছ বিক্রেতাকে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন