সিলেট নগরের প্রবেশমুখ চণ্ডিপুল এলাকায় পুলিশের কয়েকজন সদস্য নিয়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন ট্রাফিক পরিদর্শক মো. মশিউর রহমান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, সকাল ছয়টা থেকে এ মোড়ে অবস্থান করছেন তাঁরা। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত মোড়েই দায়িত্ব পালন করার কথা আছে। মূলত ‘অপ্রীতিকর’ ঘটনা এড়াতেই দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানান তিনি।

নগরের শেখঘাট মোড়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন পুলিশ পরিদর্শক মো. আবদুর রউফ। তিনি বলেন, সকাল ছয়টা থেকে শেখঘাট মোড়ে পুলিশের অন্য সদস্যদের নিয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। সমাবেশ শেষ হওয়ার আগপর্যন্ত দায়িত্ব পালন করার কথা রয়েছে।

মহানগর পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সিলেট মহানগরসহ বিভাগের চার জেলার বিভিন্ন পয়েন্টে তল্লাশিচৌকি বসানো হয়েছে। এর মধ্যে সিলেট মহানগরের ছয় থানায় ১৯টি তল্লাশিচৌকি বসানো হয়েছে।

মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. নিশারুল আরিফ গতকাল শুক্রবার রাতে প্রথম আলোকে বলেন, পুলিশ যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ও নাশকতা এড়াতে তল্লাশিচৌকি বসিয়েছে। পুলিশ কাউকেই সিলেট শহরে ঢুকতে বাধা দিচ্ছে না।