স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গনাইসার এলাকার বাবু খান নামের এক যুবক বিলে মাছ ধরার জন্য চাঁই পাতেন। আজ সকালে বিলে মাছ ধরার চাঁই তুলতে গেলে বড় কিছু আটকা পড়েছে বলে টের পান তিনি। বড় মাছ ধরা পড়েছে ভেবে তাঁর বড় ভাই ওসমানকে খবর দেন। কিন্তু চাঁই টেনে তুলতেই তাঁরা দেখেন চাঁইয়ের ভেতর বিশাল এক অজগর। পরে তাঁরা সাপটি বাড়িতে এনে বস্তাবন্দী করে রাখেন।

ওসমান খান বলেন, ‘ছোট ভাই প্রথমে এটিকে বড় গজার মাছ ভেবেছিল। আমাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। আমি চাঁই তুলতেই অজগর সাপটিকে দেখতে পাই। পরে সেটি বস্তাবন্দী করি এবং অজগর সাপটি দেখার জন্য আশপাশের লোকজন আসতে থাকে। স্থানীয় সংবাদকর্মী ও বন বিভাগকে খবর দিই। তারা এসে বিকেলে সাপটি নিয়ে যায়।’

উপজেলা বন কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির বিকেলে প্রথম আলোকে বলেন, আজ সকালে স্থানীয় ব্যক্তিদের মাধ্যমে অজগর সাপ ধরা পড়ার বিষয়টি জানতে পারি। পরে ঢাকার বন্য প্রাণী অধিদপ্তরে যোগাযোগ করা হয়। বিকেল চারটার দিকে বন্য প্রাণী অধিদপ্তরের লোকজন সাপটি নিয়ে যান। এই সাপ পাহাড়ি অঞ্চলে বেশি থাকে। বন্যার সময় হয়তো এখানে এসে আশ্রয় নিয়েছিল। এটির বয়স এক-দুই বছর হবে। এমন সাপ এ অঞ্চলে আরও থাকতে পারে। সাপগুলো পরিবেশ ও মানুষের জন্য ক্ষতিকারক নয়। এগুলো বিষাক্ত নয়।

এমন সাপ কারও চোখে পড়লে এগুলোকে না মেরে বন বিভাগকে খবর দেওয়ার অনুরোধ জানান বন বিভাগের ওই কর্মকর্তা।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন