মেয়র শাহনেওয়াজ আলী বলেন, সকালে পৌর শহরের চাঁচকৈড় বাজার থেকে প্রাইভেট কারটি ভাড়া করে জেলা পরিষদের সদস্য সরকার মেহেদী হাসান ও পৌর যুবলীগের সভাপতি তাহের সোনারকে নিয়ে তিনি নাটোরে গিয়েছিলেন। চালক হিরো আহম্মেদ সেটি চালাচ্ছিলেন। বেলা ১১টার দিকে বাড়ি ফিরছিলেন তাঁরা। পৌরসভার অদূরে ধারাবারিষা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে পৌঁছালে দুপুর ১২টার দিকে তাঁদের বহনকারী প্রাইভেট কারটির সড়কের পাশের বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা লাগে। একপর্যায়ে সড়ক থেকে এটি প্রায় ১০-১২ ফুট নিচে পুকুরে পড়ে যায়। সেখানে ছোট একটি বাজার থাকার কারণে উপস্থিত লোকজনের সহায়তায় প্রাণে বেঁচে যান তাঁরা।

মেয়র আরও বলেন, প্রাইভেট কারের চালক তন্দ্রাচ্ছন্ন ছিলেন। ফেরার সময় বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কেও একবার দুর্ঘটনায় পড়তে গিয়েছিলেন। চালককে চা পান করে স্বাভাবিক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেই পরামর্শ আমলে নেননি চালক। ফলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তবে চালক ও প্রাইভেট কারের মালিক পরিচিত হওয়ায় মানবিক কারণে তাঁদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।