বিএনপির বিবৃতিতে বলা হয়, সরকার সারা দেশে বিএনপির সমাবেশে জনসম্পৃক্ততা দেখে দিশাহারা হয়ে গেছে। তাই সমাবেশকে সামনে রেখে দেশের অন্যান্য এলাকার মতো সিলেটেও ধরপাকড় শুরু করেছে পুলিশ। তবে কোনো ষড়যন্ত্রই ১৯ নভেম্বর সিলেটের গণসমাবেশকে আটকাতে পারবে না। জনগণ সব অপকর্মের দাঁতভাঙা জবাব দেবে।

বিবৃতির বিষয়ে মিফতাহ সিদ্দিকী প্রথম আলোকে বলেন, আজ দুপুর ১২টার দিকে মৌলভীবাজার শহরে প্রচারমিছিল থেকে স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদল নেতাদের পুলিশ আটক করেছে। এ ছাড়া বিভিন্ন স্থানে পুলিশ নেতা-কর্মীদের প্রচারমিছিলে বাধা দিচ্ছে। এটি দুঃখজনক।

এ বিষয়ে পুলিশের সিলেট রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মফিজ উদ্দিন আহম্মেদ প্রথম আলোকে বলেন, কোথাও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি না ঘটলে কিংবা সুনির্দিষ্ট অভিযোগ না পেলে পুলিশের বাধা দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। বিএনপি নির্বিঘ্নে কর্মসূচি পালন করছে। আটকের বিষয়টি তাঁর জানা নেই। তিনি খোঁজ নিয়ে দেখবেন।

মৌলভীবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইয়াছিনুল হক বলেন, ‘পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। তারা আমাদের হেফাজতে আছে। তাদের বিষয়ে তথ্য যাচাই–বাছাই করা হচ্ছে।’