সম্প্রতি সরেজমিনে দেখা যায়, জামালপুর-মাদারগঞ্জ মহাসড়কের ব্যস্ততম হাজরাবাড়ী বাজার এলাকা উত্তর ও দক্ষিণ দিক থেকে ঢোকার প্রবেশপথ এটি। দুটি সড়কের মাথা এসে হাজরাবাড়ী বাজার এলাকায় মিশেছে। তাই এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ মোড়। এ মোড়ের সড়কটির দুই পাশে সারি সারি সিএনজিচালিত ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছে। হাজরাবাড়ী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের মূল ফটকের পাশে অটোরিকশার সারি গিয়ে ঠেকেছে। পথচারীদের চলাচলের জায়গাতেও অটোরিকশা রাখা। সড়কের মাঝখান দিয়ে অল্প জায়গা দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। পথচারীরা কষ্ট করে মোড়টি পারাপার হচ্ছে।

* মোড়ের চারপাশে দাঁড় করিয়ে রাখা হয় অটোরিকশা, ইজিবাইক ও ভ্যানগাড়ি। * সম্প্রতি হাজরাবাড়ীকে পৌরসভা ঘোষণা করা হয়েছে।

হাজরাবাড়ী বাজারের ব্যবসায়ী রেজাউল করিম বলেন, এই মোড় থেকে মেলান্দহ উপজেলা শহর, মাদারগঞ্জ ও কয়েকটি ইউনিয়নে যাতায়াত করতে হয়। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় বাজারও এটি। চারপাশের লোকজন, এখানে এসেই কেনাকাটা করেন। ফলে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত জটলা লেগেই থাকে। এসব নিয়ন্ত্রণে কোনো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নেই। আবার যত্রতত্র অটোরিকশা দাঁড়িয়ে থাকায় মহাসড়কে যানজট লেগেই থাকে।

মোড়ের দক্ষিণ পাশে হাজরাবাড়ী বালিকা উচ্চবিদ্যালয় আর উত্তর পাশে হাজরাবাড়ী বাজার। ক্লাস শুরু ও ছুটির সময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থীরা চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়ে। যানজটের কারণে তাদের প্রতিষ্ঠান থেকে বেরিয়ে যানজটে আটকে থাকতে হয়। বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, পুরো সড়কটি দখল করে স্ট্যান্ড গড়ে তোলা হয়েছে। মোড়ের চারপাশে দাঁড় করিয়ে রাখা হয় অটোরিকশা, ইজিবাইক ও ব্যাটারিচালিত ভ্যানগাড়ি। পায়ে হেঁটেও যাওয়ার উপায় থাকে না। দ্রুত স্ট্যান্ডটি অন্য স্থানে স্থানান্তর করা প্রয়োজন।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্ট্যান্ডটি অন্য স্থানে নিলেও তাঁদের কোনো সমস্যা নেই বলে জানিয়েছেন অটোরিকশাচালক ফরহাদ হোসেন। আরেক অটোরিকশা চালক মো. শহীদুল্লাহ বলেন, ‘গাড়ি রাখার জন্য আমাদের জায়গা দরকার। কিন্তু বাজারের আশপাশে কোথাও জায়গা নেই। তাই সবাই রাস্তার পাশ দিয়েই গাড়ি রাখে। এতে কিছুটা যানজট হয়।’ অটোরিকশার স্ট্যান্ড সরানোর জন্য পৌর প্রশাসন যদি পুলিশের সহযোগিতা চায়, তবে সেই সহযোগিতা করা হবে বলে জানিয়েছেন মেলান্দহ থানার ওসি মো. দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, সেখানে যানজট নিরসনে দু-একজন পুলিশ সদস্যকে দায়িত্ব দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

মেলান্দহের ইউএনও হাজরাবাড়ী পৌরসভার প্রশাসক সেলিম মিঞা বলেন, আইনশৃঙ্খলা কমিটির মিটিংয়ে এ বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে। সড়কের ওপর কোনো অটোরিকশাস্ট্যান্ড থাকবে না।