পুলিশ জানায়, পাঁচ কিশোর আটক করার পর তাদের অভিভাবকদের খবর দেওয়া হয়। অভিভাবকেরা থানায় আসার পর ‘আর নেশা করবে না’ বলে অঙ্গীকার করে কিশোরেরা।

সন্তানেরা কোথায় যায়, কী করে, এ বিষয়ে খোঁজখবর নেবেন বলে পুলিশকে জানান অভিভাবকেরা। এরপর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওই পাঁচ কিশোর এক মাস বই পড়ার শর্ত দিয়ে অভিভাবকদের জিম্মায় দেন।

জানতে চাইলে জয়পুরহাট সদর থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ওই পাঁচ কিশোর এক মাস পর অভিভাবকদের সঙ্গে নিয়ে থানায় এসে তাদের পড়া বইগুলো ফেরত দেবে। তাদের উন্নতি হয়েছে কি না, তখন বোঝা যাবে।