শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শুধু আমাদের দেশেই নয়, বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে আগামী ৫, ১০, ৫০ বছরে কোন ধরনের কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে, সেটি বিবেচনায় নিয়ে সেই রকম গবেষণা করে আমাদের নতুন প্রজন্ম এবং যাঁরা আসবেন, তাঁদের গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। শিক্ষার্থীদের দেশে-বিদেশে কর্মসংস্থানের পথে বাঁধা দূর করতে শিক্ষাব্যবস্থার সর্বত্র ভাষা শিক্ষা, আইসিটি ও উদ্যোক্তা হওয়ার দক্ষতার ওপর বিশেষভাবে জোর দেওয়া হচ্ছে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শামসুল আলম। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দেশে রিজার্ভের কোনো সংকট নেই। তবে চলমান বিশ্ব মূল্যস্ফীতির কারণে আমরা কিছুটা অস্বস্তিতে আছি। তবে এই মূল্যস্ফীতি আমাদের কারণে নয়, এটি বাইরে থেকে আসা।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান রিজার্ভ দিয়ে দেশের পাঁচ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো যাবে। যেটা তিন মাস থাকলেই যথেষ্ট। শুধু খাদ্য আমদানি করলে আট থেকে নয় মাসের ব্যয় বহন করা যাবে। আশঙ্কাবাদীরা রিজার্ভ নিয়ে অতিরিক্ত কথা বলছেন তিনি মন্তব্য করেন।

অনুষ্ঠানে পুলিশের সদস্যদের মধ্যে বিভিন্ন খেলা অনুষ্ঠিত হয়। অতিথিরা বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। এতে প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন