পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দ্বীপ কুমার ও বিজয় কুমার একটি বাইসাইকেলে বিদ্যালয়ে যাচ্ছিল। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের সামনের মোড়ে পৌঁছালে জয়পুরহাট থেকে ছেড়ে আসা আক্কেলপুরগামী একটি বাস তাদের বাইসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। তারা ছিটকে সড়কের পাশে পড়ে গুরুতর আহত হয়। ঘটনার পরপরই চালক বাসটি রেখে পালিয়ে যান।

স্থানীয় লোকজন ও দাদরা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী-শিক্ষকেরা এসে আহত দুই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে পাঠান। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বাসটি ভাঙচুর করে সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করলে দেড় ঘণ্টা পর সড়কে আবার বাস চলাচল স্বাভাবিক হয়।

দাদরা উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র পল্লব কুমার বলে, জয়পুরহাট-আক্কেলপুর সড়কের জামালপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মোড়ে এসে যানবাহনগুলো বেপরোয়া গতিতে চলাচল করে। মোড়ে গতিরোধক স্থাপনের দাবি জানিয়েছে তারা।

জয়পুরহাট জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সুমাইয়া সাচি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত দুই শিক্ষার্থীকে জরুরি বিভাগে আনা হয়। এর মধ্যে গুরুতর আহত দ্বীপ কুমারকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম বলেন, ঘটনার পর বাসচালক পালিয়েছেন। বাসটি জব্দ করে থানায় আনা হয়েছে। এ ঘটনায় সড়কে কিছু সময় বাস চলাচল করেনি। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।