পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নিহত ওই গৃহবধূর বাবার বাড়ি নীলফামারী জেলায়। আজ সকালে তিনি তাঁর বোনকে সঙ্গে নিয়ে স্বামীর বাড়ি হানাইল থেকে বাবার বাড়িতে যাওয়ার উদ্দেশে বের হন। জয়পুরহাট রেলস্টেশনে আসার উদ্দেশে দুই বোন একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় ওঠেন। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে অটোরিকশাটি জয়পুরহাট শহরের ধানমন্ডি এলাকায় পৌঁছালে অটোরিকশার চাকার সঙ্গে গৃহবধূর ওড়না পেঁচিয়ে তিনি সড়কের ওপর পড়ে যান। স্থানীয় বাসিন্দারা দ্রুত তাঁকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

জয়পুরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর জাহান প্রথম আলোকে বলেন, গৃহবধূ জেসমিন তাঁর বোনের সঙ্গে স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি নীলফামারীতে যাচ্ছিলেন। পথে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার চাকায় ওড়না পেঁচিয়ে সড়কের ওপর ছিটকে পড়েন। হাসপাতালে নেওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন