যুবলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য তাজউদ্দিন আহমেদের গ্রামের বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। এ সময় শয়নকক্ষের মালামাল তছনছ করে ডাকাতেরা। ছবিটি আজ শনিবার সকালে তোলা
ছবি: প্রথম আলো

যুবলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য তাজউদ্দিন আহমেদের পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর মিঠাখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় তাজউদ্দিন আহমেদ বাড়িতে ছিলেন।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাত তিনটার দিকে ছয়–সাতজনের একটি ডাকাত দল দোতলা পাকা বাড়ির নিচতলার রান্নাঘরের খোলা জানালা দিয়ে কৌশলে দরজার ছিটকিনি খোলে। এরপর ঘরের মধ্যে ঢুকে তাজউদ্দিন আহমেদসহ পরিবারের সদস্যদের আগ্নেয়াস্ত্র ও ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে জিম্মি করে ৭৫ হাজার টাকা, সাত ভরি স্বর্ণালংকার ও দুটি মুঠোফোন নিয়ে যায়। আজ শনিবার সকালে মঠবাড়িয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইব্রাহিম, থানা-পুলিশ ও জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

যুবলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য তাজউদ্দিন আহমেদ
ছবি: সংগৃহীত

তাজউদ্দিন আহমেদের ভাইয়ের ছেলে রামীম আহমেদ বলেন, সম্প্রতি তাঁর চাচা তাজউদ্দিন আহমেদ ঢাকা থেকে পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন উপলক্ষে পিরোজপুর হয়ে মঠবাড়িয়ার গ্রামের বাড়িতে এসেছেন। কদিন ধরে তিনি বাড়িতে আছেন। ডাকাত দলের ছয়জন সদস্য দেশীয় ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে তাজউদ্দিন আহমেদের শয়নকক্ষে গিয়ে বলে, ‘আপনি তাজউদ্দিন ভাই না? সবকিছু দিয়ে দেন।’ এরপর ডাকাতেরা ঘরের আলমারিতে থাকা টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। ডাকাত দলটি সেখানে ৪০ মিনিট ছিল।

তাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘গত ৪০ বছরে আমাদের বাড়ির আশপাশে কোনো ডাকাতির ঘটনা ঘটেনি। আমরা কখনো ভাবতেও পারিনি বাড়িতে ডাকাতি হবে।’

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।