পুলিশ জানায়, গোলাগুলির শব্দ শুনে ঘটনাস্থলে বিজিবি ও পুলিশ তল্লাশি চালিয়ে একটি একে–২২ রাইফেল, ৩টি গুলি, ২টি ম্যাগাজিন, ২১টি গুলির খোসা, ১টি মুঠোফোন, চাঁদা আদায়ের রসিদ, ১টি ব্যাগ ও ১টি ব্যানার উদ্ধার করেছে।

মাটিরাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী প্রথম আলোকে বলেন, ভোরে ইউপিডিএফ ও গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফের মধ্যে গোলাগুলির খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে একজনের লাশ দেখতে পায়। লাশ উদ্ধার করে মাটিরাঙ্গায় নিয়ে আসা হচ্ছে। নিহত উত্তম ত্রিপুরা একজন ইউপিডিএফের কর্মী।

তবে ইউপিডিএফের সংগঠক অংগ্য মারমা প্রথম আলোকে বলেন, উত্তম ত্রিপুরা তাঁদের দলের লোক নন। তিনি ওই এলাকার বাসিন্দা ও একজন জুমচাষি ছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন