বিএনপির নেতারা অভিযোগ করেন, বাকেরগঞ্জ উপজেলার কলসকাঠি ইউনিয়নের কলসকাঠি বাজার এলাকায় আজ বেলা ১১টার দিকে পথসভা ও লিফলেট বিতরণের আয়োজন করে স্থানীয় বিএনপি। এ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাকেরগঞ্জ এলাকার সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আবুল হোসেন খান। পথসভা চলাকালে বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলাউদ্দীন মিলনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সদস্য সেখানে আসেন এবং বেধড়ক লাঠিপেটা শুরু করেন। এতে আবুল হোসেন খান, স্থানীয় উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ জমাদ্দারসহ নাসির উদ্দীন হাওলাদার, জাহাঙ্গীর হোসেন তালুকদার ও মো. শাওন আহত হন। আহত ব্যক্তিরা পরে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

বিএনপির নেতা-কর্মীরা বলেন, বিনা উসকানিতে পুলিশের লাঠিপেটায় পথসভাটি পণ্ড হয়ে যায়। পরে আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
সাবেক সংসদ সদস্য আবুল হোসেন খান প্রথম আলোকে বলেন, ‘মঙ্গলবার সকালে আমরা কলসকাঠি বাজারে শান্তিপূর্ণ পথসভা করছিলাম। কিন্তু সভা চলাকালে বাকেরগঞ্জ থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা আমার ও দলের নেতা-কর্মীদের ওপর কোনো রকম উসকানি ছাড়াই বেধড়ক লাঠিপেটা করেন।’

আবুল হোসেন খান আরও বলেন, সরকার নানাভাবে বিএনপির গণসমাবেশ বানচাল করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছে। চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, খুলনা ও রংপুরে বাস, ট্রেন, লঞ্চ, খেয়ানৌকাসহ সব ধরনের যান বন্ধ করেও ওই সব গণসমাবেশে মানুষের ঢল রোধ করতে পারেনি। বরিশালেও একই স্টাইলে অপচেষ্টা শুরু হয়েছে। এখন তাতে ব্যর্থ হয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে লেলিয়ে দিয়েছে।

জানতে চাইলে বাকেরগঞ্জ থানার ওসি আলাউদ্দীন মিলন বিকেলে বলেন, বাকেরগঞ্জে বিএনপির দুটি বিবদমান পক্ষ রয়েছে। একটি পক্ষের নেতৃত্বে আবুল হোসেন খান এবং অপর পক্ষের নেতৃত্বে আছেন শওকত হোসেন। এই দুই বিবদমান পক্ষ আজ একই সময় কলসকাঠি বাজারে মিছিল ও পথসভা করতে চায়। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। কলসকাঠি বাজারে আজ সাপ্তাহিক হাটের দিন থাকায় শান্তি ভঙ্গের আশঙ্কায় দুই পক্ষকে মিছিল করতে দেওয়া হয়নি। লাঠিপেটা করার অভিযোগ সত্য নয়।

বরিশাল নগরে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা
আগামী ৫ নভেম্বরের বিভাগীয় গণসমাবেশ সফল করতে আজ দিনভর বরিশাল নগরের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক প্রচার চালায় বিএনপি। সকালে দলীয় সমর্থকদের নিয়ে নগরের সিটি করপোরেশন এলাকা, চকবাজার ও লাইন রোডে লিফলেট বিতরণ করেন বরিশাল নগর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার।

সকাল ১০টায় মহানগর বিএনপির উদ্যোগে মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে লিফলেট বিতরণ এবং বেলা ১১টায় পোর্ট রোড এলাকায়, বিকেল ৪টায় নগরের আমানতগঞ্জে, সোনালি আইসক্রিম মোড়ে পথসভা কো হয় ।

সন্ধ্যায় নগরের ডিসিঘাট এলাকার একটি হোটেলের মিলনায়তনে মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা বিএনপি যৌথ প্রস্তুতি সভা করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেন।