ওই দোকানের সিসিটিভির একটি ফুটেজ এসেছে প্রথম আলোর হাতে। এতে রানা পোদ্দারের অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে অস্ত্রধারী তরুণকে শনাক্ত করেছেন মুড়াপাড়া বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মানিক মিয়া। প্রথম আলোকে তিনি জানান, অস্ত্রধারী ওই তরুণের নাম ফাহিম মোল্লা। ফাহিম মুড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য সেলিম মোল্লার ছেলে। ঘটনার পর থেকে মুড়াপাড়া বাজারের ব্যবসায়ীরা আতঙ্কে আছে বলে জানান মানিক মিয়া।

ফাহিম মোল্লার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। ফাহিমের বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হয় তার বাবা সেলিম মোল্লার সঙ্গে। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ফাহিম সরকারি মুড়াপাড়া কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। ঘটনার পর ফাহিম বাড়িতে আসেনি। তার মুঠোফোনও বন্ধ। ফাহিমের অস্ত্রের উৎস সম্পর্কে কিছু জানেন না বলেও দাবি করেন সেলিম মোল্লা।

ঘটনার পর থেকে পরিবারের লোকজনের নিরাপত্তা নিয়ে আতঙ্কিত আছেন বলে জানান রানা পোদ্দার। তিনি বলেন, বাজার কমিটির নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ করে এ ঘটনায় মামলা করবেন। এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম সায়েদ প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় আজ রোববার বিকেল পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। অস্ত্রধারীকে আটকের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন