দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে রাশেদা বেগমের হয়ে তাঁর মেয়ে পরীক্ষায় অংশ নেওয়ায় তাঁদের দুজনকে আটক করা হয়। এরপর ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইবনুল আবেদীন মা ও মেয়েকে তিন দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত অপর তিনজন নীলফামারী সরকারি কলেজ কেন্দ্রের পরীক্ষার্থী ছিলেন। পরীক্ষা কেন্দ্রে সঙ্গে মুঠোফোন রাখার অপরাধে তাঁদের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন নাহার।
নীলফামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুর রউফ বলেন, দণ্ডিতদের আজ দুপুরে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. মোজাম্মেল হক বলেন, নীলফামারীতে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ৭৬টি পদের বিপরীতে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়। ৫ হাজার ৩৮১ জন আবেদন করলেও শুক্রবার অনুষ্ঠিত নিয়োগ পরীক্ষায় ২ হাজার ১০১ জন অংশগ্রহণ করেন।