গতকাল সোমবার রাত পৌনে নয়টার দিকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হাসমত আলী এবং রাত সাড়ে নয়টার দিকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে কিতাব আলীর মৃত্যু হয়। এর আগে গত রোববার সকালে হাজেরা বেগমের মৃত্যু হয়।

দেলদুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন মৃধা বলেন, রোববার সকালে তারুটিয়া গ্রামের সাধারণ মানুষের ওপর আক্রমণ চালায় পাগলা মহিষটি। এ সময় অন্তত ১০ জন আহত হন। আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। ওই দিন বেলা তিনটার দিকে মির্জাপুরের কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাজেরা বেগমের মৃত্যু হয়। পরে হাসমত আলী ও কিতাব আলী মারা যান।