জার্মান অ্যাগ্রিবিজনেস অ্যালায়েন্সের চেয়ারপারসন জুলিয়া হার্নাল, ব্যবস্থাপনা পরিচালক এলিনা গামপার্ট, গ্লোবাল গ্যাপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিশ্চিয়ান মুয়েলার, বায়ারক্রপ সায়েন্স ডয়েচল্যান্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পিটার মুয়েলারসহ শীর্ষস্থানীয় জার্মান ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলে ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. রুহুল আমিন তালুকদার, বার্লিনে বাংলাদেশ দূতাবাসের মিনিস্টার মো. সাইফুল ইসলাম।

পরে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক কানাডার কৃষিমন্ত্রী মেরি-ক্লাউডি বিবিউর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন। স্বাধীনতার পর বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়া ও সহযোগিতার জন্য কানাডার কৃষিমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান তিনি।

বৈঠকে কানাডার সাচকেচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্লোবাল ইনস্টিটিউট ফর ফুড সিকিউরিটির সঙ্গে চলমান সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হয়। গত বছর সেখানে স্থাপিত ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’-এর আওতায় গবেষণা ও প্রশিক্ষণের প্রতি জোর দেওয়া হয় বৈঠকে। ঢাকায় বঙ্গবন্ধু-পিয়েরে ট্রুডো সেন্টার স্থাপনের জন্য আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে কানাডার কৃষিমন্ত্রীকে বাংলাদেশে ভ্রমণের আমন্ত্রণ জানান কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক।

জবাবে কানাডার কৃষিমন্ত্রী মেরি-ক্লাউডি বিবিউ বলেন, অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাংলাদেশে আসবেন তিনি। এ ছাড়া তিনি বাংলাদেশের কৃষিপণ্য রপ্তানির সুযোগ সৃষ্টি, কৃষি প্রক্রিয়াকরণ শিল্পে বিনিয়োগসহ সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দেন।