এ নিয়ে এই দুর্ঘটনায় দুজন মারা গেছেন বলে প্রথম আলোকে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নবীর হোসেন। দুপুরে মারা যান সুমাইয়া মাহিমা রহমান (২২)। তাঁরা দুজনই ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। সুমাইয়া ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

ওসি নবীর হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, সকালে ঢাকা থেকে একটি প্রাইভেট কার সোনারগাঁয়ের পানাম সিটিতে যাচ্ছিল। দড়িকান্দি এলাকায় প্রাইভেটকারের চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে কারটি ইউ টার্ন হয়ে রাস্তার অপর পাশে চলে আসে। এ সময় ঢাকাগামী সৌদিয়া পরিবহন প্রাইভেট কারটিকে চাপা দেয়। এতে প্রাইভেটকারে থাকা পাঁচ শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হন। তাঁদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সুমাইয়াকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাহাদ নামে একজন মারা যান। এ ঘটনায় আরও তিন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

default-image

সুমাইয়ার বন্ধু আসিফ রাজ্জাক খান প্রথম আলোকে বলেন, আজ সকালে একটি মাইক্রোবাস ও একটি প্রাইভেট কারে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮–১০ জন সহপাঠী ও বন্ধু মিলে সোনারগাঁয়ের পানাম সিটিতে ঘুরতে যাচ্ছিলেন। পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহত অন্য তিনজন হলেন আনান, সাইফুল ও হাবিব।

নিহত সুমাইয়ার বাবা ব্যবসায়ী মাহফুজুর রহমান জানান, তাঁদের গ্রামের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের মোগড়াপাড়া গ্রামে। তাঁরা থাকেন ডেমরার শারুলিয়ায়। এক বোন ও দুই ভাইয়ের মধ্যে সুমাইয়া সবার বড়।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন