সভাশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শামসুল আলম প্রেস ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিস্তারিত বক্তব্য তুলে ধরেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘সরকারপ্রধান বলেছেন, মিতব্যয়ী হতে হবে। আসুন সবাই মিতব্যয়ী হই।’ তিনি গোটা আমলাতন্ত্রসহ সরকার এবং সরকারের বাইরে যাঁরা সাধারণ নাগরিক আছেন, সবাইকে মিতব্যয়ী হওয়ার আহ্বান জানান।

এম এ মান্নান বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের অভিঘাত আমাদের ওপর পড়েছে। জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির জন্য বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো আমরাও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। যে পণ্য আমরা নিজেরা উৎপাদন করি না, সেটির অভিঘাত মোকাবিলার জন্য আমাদের সতর্ক হতে হবে। প্রধানমন্ত্রী মূলত এ কারণে দেশবাসীকে মিতব্যয়ী হতে বলেছেন।’

প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসনের বিষয়ে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শামসুল আলম বলেন, প্রধানমন্ত্রী মিতব্যয়ী হওয়ার নির্দেশনা প্রতিনিয়তই দেন। প্রধানমন্ত্রী কিন্তু আগেও বলেছিলেন, গরমের সময় অফিসে কোট-স্যুট না পরতে। এ ছাড়া সরকারি অফিসগুলোর এসি একটি নির্দিষ্ট মাত্রায় চালানোর জন্য বলেছিলেন। অপচয় না করতে প্রধানমন্ত্রী সব সময়ই বলে আসছেন।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, কোনো সরকারি প্রকল্প লাভজনক হলে সেই মুনাফা সরকারের কোষাগারে জমা দিতে হবে। ময়মনসিংহ কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎকেন্দ্রে গ্যাস সরবরাহের জন্য ধনুয়া থেকে ময়মনসিংহ পর্যন্ত গ্যাস পাইপলাইন নির্মাণ প্রকল্পটি অনুমোদনের সময় প্রধানমন্ত্রী এই নির্দেশনা দেন।

শামসুল আলম বলেন, হাসপাতালের মতো স্থাপনার সামনে মেট্রোরেল চলাচলের শব্দ কমাতে সাউন্ড ব্রেকার বসানোর নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ ছাড়া, মেট্রোরেলের ল্যান্ডিং স্টেশনে গাড়ি পার্কিংয়ের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রাখতেও নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন