অব্যাহতি পাওয়া নেতারা হলেন দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মনোয়ার হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আহম্মদ, সহপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল গফুর, পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য গোলাম মোস্তফা, উপজেলা যুবলীগের সদস্য মো. বাদশা ও বাবলু মিয়া, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিফাইতুল ইসলাম ও বিজয় মিয়া, চিকাজানী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আশরাফুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রেজাউল করিম, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য মো. আব্দুল ওয়াহাব ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক মো. দুলাল মিয়া, সাবেক ছাত্রনেতা তাপস আহম্মদ, মাহাবুবুর রহমান, বিকাশ কবির, রেজাউল করিম, মোখলেছুর রহমান, রেজাউল করিম, শাহারিয়া সোহেল, আলামিন হিটলার, দেওয়ান বাবলা ও মোজাফ্‌ফর আহম্মদ।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ প্রথম আলোকে বলেন, দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ–মনোনীত নৌকার প্রার্থীর বিপক্ষে এবং বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করার অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় ওই ২২ জনকে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নিজ নিজ পদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন