আদালতের বেঞ্চ সহকারী ওসমান গণি প্রথম আলোকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেছেন, আসামি জহির আহমদ পলাতক। তাঁর বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

জহির আহমদ নুরজাহান গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান মেসার্স জাসমির সুপার অয়েল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। জাসমির সুপার অয়েলের কারখানা পরিদর্শন করে ভিটামিন ‘এ’ পায়নি বিএসটিআই। সরকারি আইন অমান্য করে সঠিক মাত্রায় ভিটামিন ‘এ’ সংযোজন না করে ফর্টিফাইড পাম অলিন বিক্রয়, বিতরণ ও বাজারজাত করার অভিযোগে ২০১৯ সালের ২০ সেপ্টেম্বর মামলা হয়।

বিএসটিআই চট্টগ্রামের পরিদর্শক রাজীব দাশ গুপ্ত বাদী হয়ে মামলাটি করেন। গত ১২ জুন এই মামলায় জহির আহমদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করেন আদালত। তিনজন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে এই রায় দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন