মীরজাদী সেব্রিনা
প্রথম আলো ফাইল ছবি

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মীরজাদী সেব্রিনার সুস্থ হতে সময় লাগবে। সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে তাঁর চিকিৎসা চলছে। গতকালের চেয়ে আজ সোমবার তাঁর অবস্থার সামান্য উন্নতির কথা জানিয়েছেন ওই হাসপাতালে থাকা তাঁর এক নিকট স্বজন।

আজ সন্ধ্যায় ওই নিকট স্বজন প্রথম আলোকে বলেন, গতকালের চেয়ে তাঁর অবস্থার (মীরজাদী সেব্রিনা) কিছুটা উন্নতি দেখা গেছে। আরও ২০–২৫ দিন আইসিইউতে থাকা লাগতে পারে।

হাসপাতাল ও নিকট আত্মীয়দের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক আহমেদুল কবীর। তিনি আজ প্রথম আলোকে বলেন, সিঙ্গাপুরের হাসপাতালের সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে। তাঁর কাছ থেকে কেস সামারি (রোগের সংক্ষিপ্ত বিবরণ) পাওয়া গেলে মীরজাদী সেব্রিনার পরিস্থিতি ঠিকভাবে জানা যাবে। তবে তাঁর ডায়ালাইসিস চলছে। ফুসফুসেও কিছুটা সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

মীরজাদী সেব্রিনার অসুস্থতা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ লেখালেখি হচ্ছে।

এ মাসের প্রথম সপ্তাহে মীরজাদী সেব্রিনা সিঙ্গাপুরে যান বলে জানান আহমেদুল কবীর। সেখানে যাওয়ার আগে তিনি রাজধানীর একটি অভিজাত হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছিলেন।

২০২০ সালের করোনা মহামারির শুরু সময় প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে প্রেস ব্রিফিং করতেন মীরজাদী সেব্রিনা। সেই সময় তিনি সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক ছিলেন। তখন তিনি প্রতিদিন দুপুর ১২টায় প্রেস ব্রিফিংয়ে হাজির হতেন। দেশের মানুষ ঠিক ওই সময় টেলিভিশনের সামনে উপস্থিত হতেন। মহামারি পরিস্থিতি নিয়ে দেশবাসীকে নির্দিষ্ট সময়ে জানানোর একটি ধারা তিনি চালু করেছিলেন। সেই থেকে তাঁর নামটি বেশ পরিচিতি পায়।