নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, ‘রেলের শৃঙ্খলা আনতে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই চেষ্টা করছি। ছাদে লোক যাতে না ওঠে। সম্প্রতি বিচার বিভাগ থেকে এ বিষয়ে আদেশ দেওয়া হয়েছে। এটি ছাদে লোক ওঠা বন্ধে সহযোগিতা করবে। এই রেলে মানুষ চড়া ভুলে গিয়েছিল। যেকোনো উন্নত দেশে দেখবেন, রেলব্যবস্থা অনেক উন্নত। একমাত্র বাংলাদেশে, ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর রেলব্যবস্থা প্রায় ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল।

যেখানে তিন হাজার কিলোমিটার রেলপথ ছিল, সেখান থেকে আড়াই হাজার কিলোমিটারে নেমেছিল। রেলের সবকিছু ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছিল। ২০১১ সালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আলাদা রেল মন্ত্রণালয় গঠনের মধ্য দিয়ে রেলের নতুন যাত্রা শুরু হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে মিলনায়তনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। এ সময় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোমতাজ উদ্দিন ফকিরের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বেসামরিক ও বিমান পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এম আমীর উল ইসলাম ও ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সমিতির সম্পাদক আবদুন নূর।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন