প্রি থেকে শুরু করে স্কুলশিক্ষার্থীদের সম্ভাবনাকে বিকশিত করতে ‘কুমন পদ্ধতি’ ডিজাইন করা হয়েছে। এ সময়ে শিক্ষার্থীরা এমন কিছু জীবনমুখী দক্ষতা অর্জন করে, যা তারা আজীবন ব্যবহার করতে পারে। জাপানি দর্শন ‘কাইজেন’ (ছোট ছোট ধাপে ক্রমাগত উন্নতি) থেকে অনুপ্রাণিত কুমন ওয়ার্কশিটের ‘জাস্ট রাইট লেভেল’কে কাজে লাগিয়ে শিক্ষার্থীরা তাদের স্কুল গ্রেড থেকে পাঁচ বছর পর্যন্ত অ্যাডভান্স ম্যাথ টপিক করতে সক্ষম হয়।

১৯৫৮ সালে শিক্ষার্থীদের গণিতে পারদর্শী করতে ও শেখার প্রতি ভালোবাসা অর্জনে সহায়তা করার লক্ষ্যে কুমন ইনস্টিটিউট অব এডুকেশন প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এরপর থেকে কুমন ৫৯টির বেশি দেশে সফলভাবে ২৫ হাজারের বেশি সেন্টার স্থাপন করেছে। এটি মূলত জাপানভিত্তিক একটি প্রতিষ্ঠান।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন