রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার জি এস এম জাফরুল্লাহ বিভাগীয় কমিশনারদের পক্ষে বক্তব্য দেন।

নরসিংদীর জেলা প্রশাসক আবু নাঈম মোহাম্মদ মারুফ খান ও বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াসমিন পারভিন তিবরিজি জেলা প্রশাসকদের পক্ষে বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে স্থানীয় প্রশাসনের সার্বিক উন্নয়নের ওপর একটি ভিডিও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এই সম্মেলনের পরবর্তী অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে।

স্বাগত বক্তব্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, জেলা প্রশাসকদের দেওয়া মোট ২৪৫টি প্রস্তাবের ওপর ২৬টি কার্য অধিবেশনে আলোচনা করা হবে। সরকারপ্রধানের পাশাপাশি বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মন্ত্রী-সচিবেরা আলোচনায় যোগ দেবেন। তাঁরা ডিসিদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেবেন।

মাহবুব হোসেন বলেন, এই সম্মেলনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি, স্বাস্থ্য, ভূমি, ব্যবস্থাপনা ও শিক্ষাসংক্রান্ত প্রস্তাবগুলো অগ্রাধিকার পাবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও বলেন, ডিসিরা গত বছরের সম্মেলনে ২৪২টি প্রস্তাব রেখেছিলেন, যার মধ্যে ১৭৭টি বাস্তবায়ন করা হয়েছে। অবশিষ্ট ৬৬টি প্রস্তাবের বাস্তবায়ন চলছে।

সম্মেলনের সময়সূচি অনুযায়ী, দ্বিতীয় দিন ২৫ জানুয়ারি জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী ও প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর সঙ্গে ডিসিরা সাক্ষাৎ করবেন।

সম্মেলনের তৃতীয় দিনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন ডিসিরা।