জাতীয়ভিত্তিক ১৪টি সাংস্কৃতিক ফেডারেশনের ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া গ্রামে আকাশ সাহা নামের এক যুবকের কথিত ফেসবুক স্ট্যাটাসে ধর্মীয় বিশ্বাসের ওপর আঘাত হানার অভিযোগ এনে সংঘবদ্ধ কিছু লোক হিন্দুদের বাড়ি–ঘর, দোকানপাটে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন ও ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করেছে। আমরা এ হামলার নিন্দা জানাই এবং অবিলম্বে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবি করছি।’

এর আগেও একটি বিশেষ মহল গুজব ছড়িয়ে সাধারণ ধর্মপ্রাণ মানুষকে বিভ্রান্ত করে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা চালিয়েছিল বলে উল্লেখ করা হয়েছে বিবৃতিতে। বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি অপরাধ করে থাকলে এর দায় একান্তই তার নিজস্ব। এ জন্য কোনো অবস্থাতেই সম্প্রদায় বা জাতিগোষ্ঠীকে দায়ী করা যায় না।

এ ধরনের নির্যাতন–নিপীড়নের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার প্রত্যয় জানিয়েছেন সাংস্কৃতিক কর্মীরা। বিবৃতি দেওয়া সংগঠনগুলো হলো সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন, জাতীয় কবিতা পরিষদ, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ, বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদ, বাংলাদেশ গণসঙ্গীত সমন্বয় পরিষদ, বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থা, বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদ, বাংলাদেশ সঙ্গীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদ, আইটিআই বাংলাদেশ কেন্দ্র, বাংলাদেশ যাত্রাশিল্প উন্নয়ন পরিষদ, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটার, বাংলাদেশ শিশু সংগঠন ঐক্য জোট ও বাংলাদেশ অভিনয় শিল্পী সংঘ।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন