গত ১৭ অক্টোবর ভলকার টার্ক জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। গতকাল সাক্ষাতের শুরুতে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক নবনিযুক্ত মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনারকে অভিনন্দন জানান। বৈঠকে আইনমন্ত্রী হাইকমিশনারকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে তাঁর কার্যালয়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার কথাও অবহিত করেন। এ সময় হাইকমিশনার ভলকার টার্ক রোহিঙ্গাদের আশ্রয়দানের জন্য বাংলাদেশ সরকারের মানবীয় উদারতার ভূয়সী প্রশংসা করেন।

বৈঠকে আইনমন্ত্রী মানবাধিকারের প্রসার ও সুরক্ষায় জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনারের কার্যালয়ের সঙ্গে একযোগে কাজ করে যাওয়ার অঙ্গীকার করেছেন। তিনি মানবাধিকার রক্ষা ও সমুন্নত রাখার ব্যাপারে বর্তমান সরকারের দৃঢ় অঙ্গীকারের কথাও পুনর্ব্যক্ত করেন।

বৈঠকে জেনেভায় জাতিসংঘ কার্যালয়ে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মো. মোস্তাফিজুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

আইনমন্ত্রী গতকাল জেনেভায় আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার নবনিযুক্ত মহাপরিচালক গিলবার্ট এফ হংবোর সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তিনি শ্রম অধিকার রক্ষায় বাংলাদেশ সরকারের নানা পদক্ষেপ সম্পর্কে গিলবার্টকে অবহিত করেন। এ বৈঠকে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানও উপস্থিত ছিলেন।