ডায়নামিক কালার কন্ট্রাস্ট: আমরা যখন টিভিতে কোনো কিছু দেখি, তখন কালার কন্ট্রাস্টের গুরুত্ব বেশি থাকে। যদি কালার কন্ট্রাস্ট ঠিক না থাকে, ভিডিওর কোয়ালিটি ভালো দেখায় না। বিষয়টি চিন্তা করে কনকা টিভিতে নতুন করে যোগ করা হয়েছে ডায়নামিক কালার কন্ট্রাস্ট, যেখানে প্রতিটি ভিডিওর কোয়ালিটি আরও প্রাণবন্ত করতে সহযোগিতা করবে।

জিরো এক্স রেডিয়েশন: বিশ্বকাপ সামনে রেখে কনকা টিভিতে এ ফিচার যোগ করা হয়েছে। যেহেতু ৯০ মিনিটের খেলা, দীর্ঘ সময় টিভির মনিটরে চোখ রাখলে অনেক সময় চোখ জ্বালাপোড়া করে। নতুন এই প্রযুক্তির কারণে দীর্ঘ সময় টিভি দেখলেও চোখের কোনো সমস্যা হবে না।

অ্যান্ড্রয়েড এলিভেন উইথ ভয়েস কন্ট্রোল এবং কার্নেল ভার্সন: এই দুটো ফিচার কনকা এলইডি টিভিতে থাকার ফলে একসঙ্গে আট হাজারের বেশি অ্যাপ সংরক্ষণ করা সম্ভব।

স্বীকৃত সাউন্ড সিস্টেম: খেলা দেখা, গান শোনা বা সিনেমা দেখার জন্য সাউন্ড একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বিষয়টি মাথায় রেখে বিশ্বের বিখ্যাত সাউন্ড মেকার ডলবি ডিজিটাল কর্তৃক স্বীকৃত সাউন্ড সংযোজন করা হয়েছে।

একসঙ্গে এতগুলো সুবিধা থাকার কারণে কনকা টিভি বাংলাদেশের মানুষের পছন্দের তালিকায় শীর্ষ স্থানে অবস্থান করবে বলে আশাবাদী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তাদের মতে, ১০ বছর আগেও দেশের বাইরে থেকে অনেক পণ্য আমদানি করা হতো। কিন্তু ইতিমধ্যে কনকা ব্র্যান্ডসহ অনেকেই বাংলাদেশে মানসম্পন্ন পণ্য উৎপাদন করছে। তাই ভবিষ্যতে দেশের চাহিদা পূরণ করে দেশের বাইরেও পণ্য রপ্তানি করতে সক্ষম হবে বাংলাদেশ।

কনকার যত অফার

বিশ্বকাপ চলাকালে কনকা টিভি কিনলে ক্রেতারা পাবেন ১০ শতাংশ ফ্ল্যাট ডিসকাউন্ট। আর রবি এলিট, জিপি স্টার বা বাংলালিংক ই–অরেঞ্জ গ্রাহকেরা পাবেন ১২ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট।

এ ছাড়া একটি টিভির সঙ্গে রয়েছে একটি স্ক্র্যাচ কার্ড। কার্ডটি স্ক্র্যাচ করে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক অথবা একটি টিভির সঙ্গে আরেকটি টিভি সম্পূর্ণ ফ্রি–ও পেতে পারেন ক্রেতারা। প্রতিটি টিভির সঙ্গে উপহার হিসেবে রয়েছে কাতার ফুটবল বিশ্বকাপের সুদৃশ্য লোগোসহ দেয়ালঘড়ি।