স্বাগত বক্তব্যে ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ বি এম মোকাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, ‘গত দুই বছর বাংলাদেশসহ সারা পৃথিবী করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত হয়েছে। ব্যবসা-বাণিজ্যে স্থবিরতাসহ নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও ২০২১ সালে ইউনিয়ন ব্যাংক সব কটি আর্থিক সূচকে ভালো করেছে। যথাযথ ব্যবস্থাপনা ও মানসম্মত ব্যাংকিং সেবা প্রদানের মাধ্যমে আমরা সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে পেরেছি। গত বছর ইউনিয়ন ব্যাংকের মোট সম্পদ ১৫ দশমিক ৪২ শতাংশ বেড়েছে। ২০২১ সাল শেষে ব্যাংকের মোট সম্পদের পরিমাণ ছিল ২১ হাজার ৩ কোটি টাকা, যা চলতি বছরের ৩০ জুন ২৪ হাজার ৯৪৪ কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে।’

এমডি আরও বলেন, ২০২১ সালে ব্যাংকের রেটিং দীর্ঘ মেয়াদে ‘এ+’ এবং স্বল্প মেয়াদে ‘এসটি-২’, যা ইউনিয়ন ব্যাংকের শক্তিশালী আর্থিক ভিত্তি, উত্তম তারল্য অবস্থা ও কাঠামোগত স্থিতিশীলতার নির্দেশক। বিনিয়োগ বহুমুখীকরণের জন্য আমরা সময়োপযোগী কৌশলগত পদক্ষেপ নিয়েছি। ক্ষুদ্র ও এসএমই, নারী উদ্যোক্তা ও উৎপাদনশীল খাতে ব্যাংকের বিনিয়োগ সম্প্রসারণ করা হয়েছে। শেয়ারহোল্ডার ও পরিচালনা পর্ষদের দিকনির্দেশনা ও সহযোগিতায় ইউনিয়ন ব্যাংক সামনের বছরগুলোতে আরও এগিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সভাপতির বক্তব্যে ইউনিয়ন ব্যাংকের চেয়ারম্যান আহসানুল আলম ব্যাংকের সব উদ্যোক্তা, পরিচালক, শেয়ারহোল্ডার, গ্রাহক, আমানতকারী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীর প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন, ডিএসই, সিএসই, বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অন্যান্য নিয়ন্ত্রক সংস্থাকেও ধন্যবাদ জানান।

আহসানুল আলম বলেন, সবার সহযোগিতায় চতুর্থ প্রজন্মের শরিয়াহভিত্তিক ইউনিয়ন ব্যাংক উত্তরোত্তর ভালো করছে। ইউনিয়ন ব্যাংক এখন পর্যন্ত সাফল্যের পথে হেঁটেছে, ভবিষ্যতেও আরও বড় সাফল্যের পথে পদচারণা অব্যাহত রাখবে।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন