বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গো জায়ান গতকাল বৃহস্পতিবার বিদেশি বিনিয়োগ পাওয়ার কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছে। তারা বলেছে, গো জায়ানে সিড রাউন্ডে নতুন এই বিনিয়োগের নেতৃত্ব দিয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার প্রযুক্তি খাতের অন্যতম বড় বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ওয়েভ মেকার পার্টনার্স। বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আছে ১৯৮২ ভেঞ্চারস, ইটারেটিভ ও সেঞ্চুরি ওক ক্যাপিটাল। প্রি সিড রাউন্ডে গো জায়ানে বিনিয়োগ করেছে ব্র্যাক ওসাইরিস ইমপ্যাক্ট ভেঞ্চারস ও ওএস ভেঞ্চার।

২০১৭ সালের ১৪ আগস্ট ভ্রমণপিপাসু পর্যটকদের অনলাইন সেবা দিতে যাত্রা শুরু করে গো জায়ান। তাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বুকিংয়ের পাশাপাশি বাসের টিকিট কেনা যায়। এমনকি অনলাইনে হোটেল বুকিংয়ের সুবিধা দেয় গো জায়ান। মাত্র তিনজন কর্মী নিয়ে শুরু করা এই প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে কাজ করেন ৭০ জন।

জানতে চাইলে গো জায়ানের প্রতিষ্ঠাতা রিদওয়ান হাফিজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘বর্তমানে আমরা মাসে ৫ লাখ মানুষকে সেবা দিচ্ছি।’ বিদেশি বিনিয়োগের অর্থ ব্যয়ের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বর্তমানে মাত্র সাড়ে ৩ শতাংশ ফ্লাইটের টিকিট অনলাইনে বিক্রি হয়। আর ১ শতাংশ পর্যটক হোটেল বুকিং করেন অনলাইনে। ফলে সেখানে অনেক সম্ভাবনা আছে। আমরা আমাদের সেবার পরিধি বাড়াতেই বিদেশি বিনিয়োগের অর্থ ব্যয় করব।’

সেপ্টেম্বর মাসে প্রথম সপ্তাহে সাড়ে ৭ কোটি মার্কিন ডলার বা ৬৪০ কোটি টাকার বড় বিনিয়োগ পায় শপআপ। দ্বিতীয় সপ্তাহে বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুরভিত্তিক স্টার্টআপ যাত্রী ১২ লাখ ডলারের বিদেশি বিনিয়োগ পায়। এ ছাড়া আরও বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান এই বিনিয়োগ পেয়েছে।

উদ্যোক্তা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন