বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভ্যাট কমিশনারেট জানায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে রাজস্ব আদায় হয়েছিল ৮ হাজার ৮৬৬ কোটি টাকা। করোনা মহামারির মধ্যেও এক বছরের ব্যবধানে রাজস্ব আদায় বেড়েছে ৫৭৪ কোটি টাকা। অর্থাৎ রাজস্ব আদায়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে সাড়ে ৬ শতাংশ।

রাজস্ব আদায় বৃদ্ধির পাশাপাশি ভ্যাট নিবন্ধন নেওয়া প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বেড়েছে ৪৮ শতাংশ। ২০১৯-২০ অর্থবছরে নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ২১ হাজার ১৪। এখন নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৩১ হাজার ৯৪। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে জুন পর্যন্ত রিটার্ন জমা দিয়েছে ২৩ হাজার ১৯৬টি। নিবন্ধনের তুলনায় রিটার্ন জমার হার ৭৭ শতাংশ। আবার অনলাইনে ৭০ শতাংশ রিটার্ন জমা হয়েছে। অনলাইনে রিটার্ন জমার ক্ষেত্রে রাজস্ব বোর্ডের ১২টি ভ্যাট কমিশনারেটের মধ্যে চট্টগ্রাম শীর্ষে।

ভ্যাট কর্মকর্তারা জানান, করোনা মহামারির এই অস্বাভাবিক পরিস্থিতির মধ্যে বছরের উল্লেখযোগ্য সময় কক্সবাজার, খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি ও বান্দরবান জেলার পর্যটন এলাকা বন্ধ ছিল। হোটেল, রেস্তোরাঁ, বিউটি পারলার, কমিউনিটি সেন্টারসহ বেশ কিছু সেবা খাতের কার্যক্রম সীমিত ছিল। এরপরও রাজস্ব আদায় বেড়েছে।

রাজস্ব আদায়ের প্রবৃদ্ধিতে করদাতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান ভ্যাট কমিশনারেটের কমিশনার মোহাম্মদ আকবর হোসেন। তিনি বলেন, কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের সব পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিরলস প্রচেষ্টার ফসল এ অর্জন।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন