বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এমন প্রেক্ষাপটে, উৎপাদন কার্যক্রম চলমান রাখা এবং আমদানি-রপ্তানিসহ দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের গতিশীলতা বজায় রাখার জন্য চলতি মূলধন ঋণসীমা প্রয়োজন অনুযায়ী যৌক্তিক পর্যায়ে বৃদ্ধির পরামর্শ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে ঋণ ঝুঁকি হ্রাস করে এবং গ্রাহকের আর্থিক সক্ষমতা যাচাই করে এ সীমা বাড়ানো যেতে পারে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, পণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় কিছু প্রকৃত ব্যবসায়ী সমস্যায় পড়েছেন। যাঁরা ব্যাংক থেকে টাকা চেয়েও পাচ্ছেন না। এ জন্য সীমা বাড়ানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

তবে ব্যাংকাররা বলছেন, আমদানি ঋণের সীমা বাড়ানোর সুযোগ কম। কারণ, বাকিতে আমদানির ঋণের ব্যবসা অনেকটা ঝুঁকিতে চলে গেছে। পণ্য এলেও অনেকে টাকা ফেরত দিচ্ছেন না।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন