default-image

তিতাস গ্যাসের আবাসিক সংযোগের বিল বিকাশে পরিশোধ করা যাচ্ছে। মিটার ও নন-মিটার উভয় ধরনের গ্রাহকেরা বিল পরিশোধ করতে পারছেন। এ জন্য বিলের ওপর ১ শতাংশ বা সর্বোচ্চ ৩০ টাকা মাশুল কাটা হচ্ছে।

নতুন এই সেবা চালুর ফলে রাজধানীসহ আশপাশের ১১টি জেলার তিতাস গ্যাসের প্রায় ২৯ লাখ গ্রাহক যেকোনো সময় যেকোনো স্থান থেকে বিকাশ দিয়ে মুহূর্তেই বিল শোধ করতে পারবেন। আগে গ্রাহকেরা ব্যাংকের লাইনে গিয়ে তিতাসের বিল পরিশোধ করতেন। এর ফলে গ্রাহকেরা বড় ধরনের ভোগান্তি থেকে রক্ষা পাবেন। তবে উৎসে আয়কর কর্তন হয়, এমন মিটার ব্যবহারকারী গ্রাহকেরা এখনই এই বিল পরিশোধ সেবা পাবেন না।

বিজ্ঞাপন
তিতাসের বিলের ওপর ১ শতাংশ বা সর্বোচ্চ ৩০ টাকা মাশুল কাটা হচ্ছে। রাজধানীসহ আশপাশের ১১টি জেলার প্রায় ২৯ লাখ গ্রাহক এই সেবা পাবেন

এ নিয়ে এক বিজ্ঞপ্তিতে বিকাশ জানিয়েছে, ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, নরসিংদী, মানিকগঞ্জ, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, জামালপুর ও শেরপুরের তিতাস গ্যাসের গ্রাহকেরা বিল পরিশোধ করতে পারবেন। বিল পরিশোধের জন্য বিকাশ অ্যাপের পে-বিল আইকন থেকে গ্যাস নির্বাচন করতে হবে। মাসিক হারে বিল পরিশোধ করেন যাঁরা, তাঁরা নন-মিটারড নির্বাচন করবেন। এরপর মাস নির্বাচন করতে হবে।

গ্রাহক চাইলে একসঙ্গে ১২ মাস পর্যন্ত একবারে নির্বাচন করে বকেয়া বিল পরিশোধের সুযোগ পাবেন। এরপর কাস্টমার কোড ও মুঠোফোন নম্বর দিতে হবে। সবশেষে বিকাশ পিন দিয়ে প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে। মিটারের গ্রাহকেরা মিটারড নির্বাচন করার পর তিতাস কাস্টমার নম্বর এবং ইনভয়েস নম্বর দেবেন। পরের ধাপে টাকার পরিমাণ ও বিকাশ পিন দিয়ে বিল প্রদান সম্পন্ন করতে পারবেন। বিলের পরিমাণের সঙ্গে ১ শতাংশ হারে সর্বোচ্চ ৩০ টাকা পর্যন্ত সার্ভিস চার্জ যুক্ত হবে।

বিল দেওয়ার পর গ্রাহকেরা ডিজিটাল বিলের নথি পেয়ে যাবেন, যা ভবিষ্যতের জন্য সংরক্ষণ করতে পারবেন। নিজের সুবিধার্থে গ্রাহকেরা বিল হিসাবের তথ্যও বিকাশ অ্যাপে সেভ করে রাখতে পারবেন, যা পরবর্তী সময়ে বিল প্রদান আরও সহজ করবে। উল্লেখ্য, বর্তমানে জালালাবাদ, সুন্দরবন ও পশ্চিমাঞ্চল গ্যাসের বিলও বিকাশে পরিশোধ করা যায়। এ ছাড়া সারা দেশের সব ধরনের বিদ্যুৎ বিল বিকাশে পরিশোধ করা যায়। ওয়াসা, বিটিসিএল টেলিফোন বিল, ইন্টারনেট বিলসহ সবচেয়ে বেশিসংখ্যক পরিষেবা বিল বিকাশ দিয়ে পরিশোধ করা যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0