বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিএসইসির কমিশন সভায় আজ বৃহস্পতিবার এ সিদ্ধান্ত হয়। এরপরই এ–সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে বিএসইসি। আদেশে বলা হয়েছে, ওটিসি বাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে ২৩টিকে এসএমই প্ল্যাটফর্মে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ২৩ কোম্পানির মধ্যে ৭টি উৎপাদনে রয়েছে, বাকি ১৬টির উৎপাদন বন্ধ। এ ছাড়া ওটিসিতে তালিকাভুক্ত ১৮টি কোম্পানিকে অলটারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ড বা বিকল্প লেনদেন বোর্ডে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত হয়েছে। বাকি ২৯টিকে নিয়ম অনুযায়ী তালিকাচ্যুত করা হবে। এর ফলে ওটিসি বাজারে লেনদেনযোগ্য আর কোনো কোম্পানি থাকবে না। ফলে ওটিসি বাজারটি অকার্যকরই হয়ে পড়বে।

জানতে চাইলে বিএসইসির কমিশনার শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, বাজারের গতিশীলতা বাড়াতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বছরের পর বছর কোম্পানিগুলো ওটিসি বাজারে পড়ে আছে। তাতে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিলেন। তাই ওটিসির ওই সব কোম্পানির মধ্য থেকে অস্তিত্বহীন কোম্পানিগুলোকে নিয়ম অনুযায়ী তালিকাচ্যুত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন