গত ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে সরকার ধাপে ধাপে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নেয়। এর পর থেকে জুতার বিক্রিও বাড়তে শুরু করে। তাতে বিক্রি বাড়ে অ্যাপেক্স ও বাটা শুর। কোম্পানি দুটি সর্বশেষ গত মার্চ শেষে তাদের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ এ তিন মাসে প্রায় ২১৫ কোটি টাকার জুতা বিক্রি করেছে বাটা শু। আর একই সময়ে অ্যাপেক্স ফুটওয়্যারের বিক্রির পরিমাণ ছিল প্রায় ২৮৪ কোটি টাকা।

বাটা শু কোম্পানি বলছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার কারণে তাদের জুতা বিক্রিতে বড় ধরনের ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। ফলে কোম্পানিটির জুতা বিক্রি ১৬ শতাংশ বেড়েছে। ২০২১ সালের জানুয়ারি-মার্চ সময়ে কোম্পানিটির বিক্রির পরিমাণ ছিল ১৮৪ কোটি টাকা। সেই হিসাবে কোম্পানিটি আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় এ বছরের প্রথম তিন মাসে ৩১ কোটি টাকার বেশি জুতা বিক্রি করেছে।

এদিকে জুতা বিক্রিতে বহুজাতিক বাটা শুর চেয়ে এগিয়ে আছে দেশীয় কোম্পানি অ্যাপেক্স ফুটওয়্যার। কোম্পানিটি চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে ২৮৪ কোটি টাকার জুতা বিক্রি করেছে, যা বাটা শুর তুলনায় প্রায় ৬৯ কোটি টাকা বেশি। তবে গত ফেব্রুয়ারিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার খুব বেশি প্রভাব কোম্পানিটির বিক্রিতে পড়েনি।

কারণ, চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে অ্যাপেক্সের বিক্রি গত বছরের একই সময়ের মতোই রয়ে গেছে। ২০২১ সালের জানুয়ারি-মার্চেও অ্যাপেক্সের বিক্রির পরিমাণ ছিল ২৮৩ কোটি টাকা। সেই হিসাবে এক বছরের ব্যবধানে বিক্রি বেড়েছে মাত্র ১ কোটি টাকার মতো।