বিএসআরএম নিবেদিত ‘উন্নয়ন সুরক্ষায় মান’ অনুষ্ঠানে ভূমিকম্প সহনীয় স্থাপনা নির্মাণে মানসম্মত রডের ব্যবহার, পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণে বিএসটিআইয়ের ভূমিকা, পরিবেশবান্ধব সবুজ স্থাপত্য নির্মাণচর্চায় মানের কী ভূমিকা থাকতে পারে, টেকসই উন্নয়নের মাধ্যমে উন্নত বাংলাদেশ গঠন এবং তাতে রেইনফোর্স কংক্রিটের ব্যবহার, স্টিলের মান উন্নয়ন এবং উন্নয়ন সুরক্ষায় মানের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করা হয়। বিশ্বায়ন ও শিল্পায়নের জন্য বিশ্বব্যাপী পণ্য ও সেবার একক এবং নির্দিষ্ট মান বজায় রাখা অপরিহার্য।

আলোচনার মাধ্যমে চারটি সুপারিশ উঠে আসে। এগুলো হলো—
১. টেকসই উন্নত বাংলাদেশ গড়তে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আন্তর্জাতিক মান বিবেচনায় নিয়ে জাতীয় মান নির্ধারণ ও নিয়ন্ত্রণ করার দৃঢ় পদক্ষেপ নিতে হবে।
২। বিএসটিআইয়ের সক্ষমতা বৃদ্ধিসহ প্রয়োজনে বুয়েট ও অন্যান্য গবেষণা প্রতিষ্ঠানকে বিএসটিআইয়ের সহযোগী সংস্থা হিসেবে কাজে লাগানো যেতে পারে।
৩। পণ্যের মানই শুধু নয়, সঙ্গে সঙ্গে সেবা ও দক্ষতার মানকেও উন্নয়নের মূল ধারায় সম্পৃক্ত করতে হবে।
৪। টেকসই সবুজ উন্নয়ন নিশ্চিত করতে মানসহ সংশ্লিষ্ট সব ক্ষেত্রে বিচক্ষণ পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করতে হবে।

‘উন্নয়ন সুরক্ষায় পণ্য ও সেবার মান উন্নয়ন নিশ্চিত হোক, বিশ্ব মান দিবসের প্রতিপাদ্য অনুসারে মান উন্নয়নের মাধ্যমেই আমাদের পৃথিবীর সুরক্ষা হোক’—এই আশাবাদের মধ্য দিয়ে আলোচনা অনুষ্ঠান শেষ হয়।