রাজউকের চেয়ারম্যান মো. আনিছুর রহমান মিঞা, এফবিসিসিআইর জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী, আবাসন খাতবিষয়ক এফবিসিসিআইয়ের স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী ভূঁইয়াসহ আবাসন খাতের ব্যবসায়ীরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে রাজউক চেয়ারম্যান মো. আনিছুর রহমান জানান, গত ২৩ আগস্টের মধ্যে যারা ভবনের নকশার আবেদন করেছেন, তাঁদের আগের ড্যাপের নিয়ম অনুসারে অনুমোদন দেওয়া হবে। তবে ওই সময়ের মধ্যে আবাসন ব্যবসায়ীরা জমির মালিকদের সঙ্গে যেসব চুক্তি করেছে, সেগুলোর বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ ছাড়া বেসরকারি আবাসন ব্যবস্থাপনা তদারকি ও অভিযুক্ত ভবন ভাঙার অভিযান পরিচালনা পর্যবেক্ষণের জন্য এফবিসিসিআইয়ের নেতৃত্বে আবাসন ব্যবসায়ীদের নিয়ে একটি কমিটি করার প্রস্তাব দিয়েছেন রাজউক চেয়ারম্যান।

এর আগে বৈঠকে দক্ষ সদস্যের সমন্বয়ে রাজউকের বোর্ড পুনর্গঠন, ফ্লোর এরিয়া রেশিও বাড়ানো, বহুতল ভবন নির্মাণের অনুমতি দেওয়াসহ বেশ কিছু প্রস্তাব দেন এফবিসিসিআইর জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী।